Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

রবিবার ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

মীন রাশিফল

pisces

pisces

মীনরাশি চরিত্রগত:
রাশিচক্রে এই সাইন জুপিটার এবং নেপচুন গ্রহের সাথে সম্পর্কযুক্ত। এই সাইনের অধীনে জন্মগ্রহণ করা মানুষ, প্রায়ই দ্বিধান্বিত এবং শৈশব থেকে তাঁদের ধারাবাহিকভাবে যত্ন নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাঁরা বন্ধুভাবাপন্ন, অত্যন্ত সংবেদনশীল এবং উদার। তাঁরা উচ্চাভিলাষী এবং ন্যায় বিচারের উন্নত ধারনা আছে। তাঁরা খুব কল্পনাপ্রবণ এবং বেশীরভাগ সময় কল্পনার রাজ্যে বসবাস করে। তাঁরা সব কিছুতেই অতি আগ্রহী যা কখনো কখনো অন্য মানুষকে বিরক্ত করতে পারে। তাঁরা অত্যন্ত কর্মচঞ্চল যাতে অন্যরা তাঁদের নার্ভাস বা অমনোযোগী বলে ভূল বুঝতে পারে।

তাঁদের ত্রুটিগুলোর একটি হচ্ছে সমঝোতার অভাব ও সাময়িক বিষণ্ণতা। কখনো কখনো তাঁরা দোটানায় ভুগে থাকেন যা পরবর্তীতে তাঁদের ব্যর্থতার কারন হতে পারে। তাঁরা তাঁদের আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না, এবং যখন কোন ফলাফল তাঁদের বিরুদ্ধে আসে, তখন তাঁরা অস্থির হয়ে যান। তাঁরা সাধারণত সন্দিহান থাকেন এবং তাঁরা কোন ফলাফল নিয়ে সন্তুষ্ট হন না। বহুমুখীটা মাঝেমধ্যে তাঁদের পরাজয়ের কারণ কেননা তাঁরা যা চান তা তাঁদের পক্ষে করা সম্ভব না, ফলে তাঁরা হীনমন্যতায় ভোগেন। এই ধরনের মানুষ সাধারনত ভুল বোঝাবুঝির শিকার হন এবং অন্যের প্রশংশা পাননা।

বন্ধুত্ব তাঁদের কাছে এতটাই গুরুত্বপূর্ণ যে তাঁরা তাঁদের বন্ধুর জন্য জীবনও উৎসর্গ করতে পারেন। যদি সম্ভব হত তবে তাঁরা তাঁদের বন্ধুদের সব সমস্যার সমাধান করে তাঁদেরকে সকল যন্ত্রণা লাঘব করে দিতো। তাঁদের বন্ধুদের সমস্যা তাঁদের নিজেদের মাথা ব্যাথায় পরিনত হয়। বৈবাহিক জীবনে তাঁরা সন্তুষ্ট নয় এবং বিশ্বস্ত নয়।

তাঁরা বিশ্বস্ত এবং ভালো কর্মচারী যদি তাঁদেরকে বুঝতে পারা যায় এবং উৎসাহ দেওয়া যায়। তাঁদের সম্পূর্ণ নিরাপদ কর্মসংস্থানের প্রয়োজন। এরা সুন্দর এবং আকর্ষণীয় জিনিস পছন্দ করে এবং শিল্পকলায় ভালো হয়।


২০১৫ সালের রাশি ফল
রাশিফল ২০১৫ অনুযায়ী বছরের প্রথম অর্ধেক স্বজ্ঞাত মীনরাশির জন্য আনন্দদায়ক হবে না। কিন্তু তারপর সবকিছু ভালোর জন্য পরিবর্তন হবে। এই লক্ষণ নিয়ে জন্মগ্রহণকারী লোকেরা সাধারণত আধ্যাত্মিক এবং সংবেদনশীল প্রকৃতির হয়। তাঁরা বন্ধুদের জন্য ত্যাগ করতে পারে, যার জন্য তাঁরা সত্যিকার অর্থেই প্রশংসিত হতে পারে। গত বছর আপনার উপর নেপচুন গ্রহের বুদ্ধিদীপ্ত প্রভাব ছিল। আপনি খুব বেশি চিন্তা করেছেন। এই বছর তা পরিবর্তন হওয়া উচিত।

বছরের শুরুতে আপনি সম্পর্কের ক্ষেত্রে সমস্যাইয় পরতে পারেন। ভিত্তিহীনভাবে ঈর্ষা আপনাকে যেন অন্ধ না করে দেয়। “ঠাণ্ডা মাথায়” সমস্যা সমাধান করুন। আপনার পা মাটিতে রাখার চেষ্টা করুন এবং কারো জন্য যুক্তিপূর্ণভাবে ভাবার চেষ্টা করুন, যা আপনি আসলেই চান। কর্মক্ষেত্রে আপনি প্রায় অলক্ষিতভাবে এগিয়ে যাবেন। আপনি কোনো কিছু নষ্ট করেন না, তবে বলতে পারবেন না যে আপনি নিজেকে নিয়ে সন্তুষ্ট।

জতপত্রিকা অনুযায়ী ২০১৫ সালের বসন্তকাল মীনরাশির জন্য কঠিন হবে। আপনাকে একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হারানোর ক্ষতি মোকাবেলা করতে হবে। এই কঠিন সময়ে সহায়তা চান এবং আপনার পরিবারকে সহায়তা দিন। তাঁরা আপনাকে এখন সবচেয়ে ভালো উপদেশ দিতে পারবে, এমনকি আপনাকে উৎফুল্ল করতে পারে। বই পড়তে চেষ্টা করুন বা কোনো কিছু আঁকতে চেষ্টা করুন। যদি কর্মক্ষেত্রে আপনার সমস্যা থাকে, তবে উপদেশ নিন। নিজে নিজে সবকিছু পরিচালনা করতে চেষ্টা করবেন না।

বছরের দ্বিতীয়ার্ধে মীনরাশির জন্য একটি সুখী জীবনের বার্তা নিয়ে আসবে। গ্রীষ্মে আপনি জীবনে ফিরে আসবেন এবং নতুন শক্তি লাভ করবেন এবং ধন্যবাদ যে, আপনি বিপরীত লিঙ্গের সদস্যদের দ্বারা আকর্ষিত হবেন। সাহস সংহত করুন এবং প্রথম পদক্ষেপ গ্রহণে ভয় পাবেন না। আপনি নতুন আত্মবিশ্বাস খুঁজে পাবেন এবং তা আপনার সুবিধা হিসেবে ব্যবহার করুন। আপনি সত্যিই আপনার সহযোগীর মাথা জড়িয়ে দেবেন এবং অনেক ছিনালী উপভোগ করবেন। আপনার যা প্রাপ্য, এটি হলো ঠিক তাই। যারা কোনো সম্পর্কে রয়েছেন তাঁদের জন্য এই শরৎকাল সৌভাগ্যের সময় হবে। নেপচুন আপনার জন্য রোমান্স এবং ছন্দ কামনা করে।

ধীরে ধীরে শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি এবং ২০১৫ সালের শেষ আসার সাথে সাথে অবশেষে মীনরাশি কর্মজীবনের সফল হতে শুরু করবে। আপনি নিজেকে যথাযথরূপে গর্বিত হতে পারেন। শুধু আপনার ঈর্ষান্বিত সহকর্মীর প্রতি খেয়াল রাখুন, যিনি আপনার সাফল্য চুরি করতে চান এবং আপনার কাজ নষ্ট করতে চান। এসময় আপনি আপনার প্রকৃত বন্ধু চিনতে পারবেন, যারা আপনার পেছনে দাড়িয়ে থাকবে। এখন একটি নতুন শখ শুরু করার উপযুক্ত সময়। রাশিফলর মতে, নভেম্বর মাসে নতুন পরিচয় তৈরি করার অনেক সহজ হবে, হতে পারে এটি ব্যবসা বা ব্যক্তিগত প্রকৃতির। অবশ্যই এর একটি ভালো ব্যবহার করুন; আপনি আকর্ষণীয় পরিচিতি এবং অভিজ্ঞতা পাবেন।


horoscope

নিয়তি আমাদের দৈনন্দিন জীবনে মাত্র ১০ ভাগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। বাকি ৯০ ভাগের নিয়ন্ত্রণ কিন্তু আমাদের হাতে। বর্তমান প্রজন্মের কাছে এ কথাটি যেন আরো অর্থবহ। তবুও সবাই বছরের শুরুতে, মাসের শুরুতে, সপ্তাহের শুরুতে কিংবা দিনের শুরুতে হুমড়ি খেয়ে পড়ে রাশি ফলের সাথে নিজের ভাগ্যটাকে মিলিয়ে নিতে। আর এ জন্যই আমরা আপনার জন্য সপ্তাহান্তে প্রকাশ করছি নতুন রাশিফল।






উপরে

ব্রেকিং