Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » অহেতুক কৌতুক 

এবারের বিষয়: টুরিস্ট

এবারের বিষয়: টুরিস্ট
কৌতুক: সংগ্রহ ২১ জানুয়ারী ২০১৪, ১২:৩৬ অপরাহ্ন Print

♦ মহারানী ক্লিওপেট্রার করোটি
মিসরের একটি পুরোন জিনিসের দোকানে এক পর্যটক ঢুকলেন। দোকানদার এগিয়ে এসে তাঁকে নানান জিনিস দেখাতে লাগল। সামনের একটি শো-কেসে একটি নর করোটি দেখতে পেয়ে পর্যটক জিঞ্জেস করলেন , “এই করোটি কার?” “এটি মহারানী ক্লিওপেট্রার,” সবিনয়ে জানালো দোকানদার । কিছুক্ষন বাদে ঘুরতে-ঘুরতে আর একটি খুলি চোখে পড়ল পর্যটকের। আগেরটির চেযে এই করোটি আকারে সামান্য ছোট। পর্যটক জিঞ্জেস করলেন , “এই করোটি কার?” দোকান দার বলল “এটিও মহারানী ক্লিওপেট্রার হুজুর তবে এটা তাঁর ছোটবেলার করোটি।

♦ কুমীর
টুরিস্টঃ নদীতে নামতে পারি? কুমীরের ভয় নেই তো?
স্হানীয় লোকঃ নিশ্চিন্তে নামুন। এখন আর একটি কুমীরও নেই। গত দু বছরে সবকটি কুমীর হাঙর খেয়ে ফেলেছে

♦ আফ্রিকায় পর্যটক
এক পর্যটক গেছে আফ্রিকায়। গাইডের সঙ্গে তার কথোপকথন।
পর্যটকঃ বন-জঙ্গলে মানুষখেকো নেই তো?
-না, নেই। এ নিয়ে একদম ভাববেন না।
-একটা মানুষখেকোও নেই?
-না, নেই। আমি নিশ্চিত হয়ে বলছি। শেষ মানুষখেকোটা আমরা গত সোমবার খেয়ে ফেলেছি।

♦ নীরবতা পালন
গাইড নায়াগ্রা জলপ্রপাতের সামনে এসে পর্যটকদের বলছে, ‘এটা হলো নায়াগ্রা জলপ্রপাত, এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় ও শক্তিশালী জলপ্রপাত। প্রতিদিন অসংখ্য লোক আসে এই জলপ্রপাত দেখতে। আর এর আওয়াজ ২০ কিলোমিটার দূর থেকেও শোনা যায়।’
এই বলে গাইড একটু থেমে বলল, ‘এবার আমি আমাদের নারী পর্যটকদের উদ্দেশে বলছি, আপনারা একটু নীরবতা পালন করুন, যেন আমরা এর শব্দ শুনতে পাই।’

♦ একবার পড়লেই হয়
পর্যটক: আচ্ছা, এই পাহাড় থেকে লোকজন প্রায়ই পড়ে যায় না তো?
গাইড: না, একবার পড়লেই হয়।

♦ মিটার
ছুটিতে ঢাকায় বেড়াতে এসেছেন এক আমেরিকান। ঢাকার ট্যাক্সিতে উঠে তিনি খুবই বিরক্ত।
আমেরিকান: আপনাদের এখানে ট্যাক্সি এত ধীরগতিতে চলে! রাস্তাগুলোও ভীষণ খারাপ। আমাদের ওখানে সাঁই সাঁই করে ট্যাক্সি চলে।
গন্তব্যে পৌঁছানোর পর মিটার দেখে আমেরিকানের চক্ষু চড়কগাছ! বললেন, ‘সে কি! মিটারে এত টাকা উঠল কী করে?’
ট্যাক্সি ড্রাইভার: আমার কী দোষ, স্যার? রাস্তা আমার দেশের হলে কী হবে, মিটার তো আপনার দেশের!

♦ গাধাগুলো সব ফিরে যাবে
গ্রীষ্মের ছুটিতে বাংলাদেশে বেড়াতে এসেছেন এক বিদেশি। তাঁর গাইড হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে ঝন্টু।
বিদেশি: তোমাদের এলাকাটা ভালোই। তবে আশপাশে মানুষ যা দেখছি, সবাই গাধা প্রকৃতির।
ঝন্টু: সমস্যা নেই। ছুটি ফুরালেই গাধাগুলো সব ফিরে যাবে!

♦ ত্রিভুজ
ছুটি কাটাতে মিসর গেছেন হরিপদ। সেখানে পিরামিড দেখে ফেরার পর হরিপদের এক বন্ধু জিজ্ঞেস করল, ‘কিরে, কেমন দেখলি পিরামিড?’
হরিপদ: দূর! বড় বড় ত্রিভুজের জ্বালায় তো কিছু দেখাই যায় না!

♦ কথা বুঝতে সমস্যা
ছুটিতে আমেরিকায় বেড়াতে গিয়েছিলেন জলিল। ফিরে আসার পর বন্ধু শফিক তাঁকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘কিরে, আমেরিকানদের কথা বুঝতে কোনো সমস্যা হয়নি তো?’
জলিল: আমার কোনো সমস্যা হয়নি। সমস্যা যা হওয়ার ওদের হয়েছে!

♦ ট্রেনের কাছে
বাবার সঙ্গে চট্টগ্রাম যাবে বলে ট্রেনে উঠেছে ছোট্ট ছেলেটা। এটাই তার জীবনের প্রথম ট্রেন- ভ্রমণ। জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে ছিল সে। একটা বাড়ি পেছনের দিকে চলে গেল, চলে গেল একটা গাছ, একটা ল্যাম্পপোস্ট…অবাক হয়ে দেখছিল ছেলেটা। বাবাকে সে চোখ বড় বড় করে প্রশ্ন করল, ‘বাবা, চট্টগ্রাম কখন ট্রেনের কাছে এসে পৌঁছাবে?!’

ব্রেকিংনিউজ/টিএস



আপনার মন্তব্য

অহেতুক কৌতুক বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং