Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » অনুসন্ধান 

ঝিনাইদহের স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে ওষুধ নেই, ভোগান্তি

ঝিনাইদহের স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে ওষুধ নেই, ভোগান্তি
ছবি: ব্রেকিংনিউজ
আরাফাতুজ্জামান ২৪ জানুয়ারী ২০১৬, ১:২৬ অপরাহ্ন Print

ঝিনাইদহ: স্বাস্থ্যসেবা। মানুষের ৫টি মৌলিক অধিকারের একটি। দেশের উন্নয়নের পূর্ব শর্তও জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা। সরকারও স্বাস্থ্যসেবা সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার কাজে সচেষ্ট। এ জন্য ইউনিয়ন পর্যায়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কেন্দ্র এবং ওয়ার্ড পর্যায়ে কমিউনিটি ক্লিনিক সেবা চালু করা হয়েছে। কিন্তু সে সেবা কতটুকু গ্রামীণ জনপদের দারিদ্র্য জনগোষ্ঠির দোরগোড়ায় পৌঁছে- এ নিয়ে রয়েছে বিতর্ক।

ঝিনাইদহের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবং কউিনিটি ক্লিনিকগুলোতে দীর্ঘ প্রায় ৪ মাস ওষুধ সরবরাহ নেই। তবে কেন? বা কি কারনে ওষুধ বরাদ্দ নেই? সংশি¬øষ্ট কর্মকর্তারাদেরও সঠিকভাবে এর উত্তর জানা নেই।

এদিকে স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে ওষুধ না থাকায় ঝিনাইদহের গ্রামীণ দারিদ্র্য জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্যসেবা চরম ব্যাহত হচ্ছে বলে জানা গেছে।

ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র ৫৯টি। আর কমিউনিটি ক্লিনিক ১’শ ৬৭টি। সরকার গ্রামীণ দারিদ্র্য জনগোষ্ঠির স্বাস্থ্যসেবা দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে এ সকল স্বাস্থ্যকেন্দ্র চালু করে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে ২৩ প্রকার এবং কমিউনিটি ক্লিনিকে ২৯ প্রকার ওষুধ দেয়া হয়। কিন্তু দীর্ঘ ৪ মাস ঝিনাইদহের এ সকল স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলোতে ওষুধ সরবরহ নেই। কবে নাগাদ এ সকল কেন্দ্রে ওষুধ সরবরাহ করা হবে, তাও সঠিকভাবে জানা নেই ঝিনাইদহ স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের।

এ বিষয়ে কোটচাঁদপুর উপজেলার সাবদারপুর গ্রামের খাইরুল ইসলাম বলেন, জ্বর, গ্যাস, সর্দিকাশি হলে ওষুধ পাওয়া যেত। শুনেছি অনেক দিন ধরে ওষুধ নেই। অনেকে ওষুধ নেয়ার জন্য হাসপাতালে যাচ্ছে। ওষুধ না পেয়ে ফিরে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়নের বাজার গোপালপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অ্যাসিস্টেন্ট রানা হামিদ ব্রেকিংনিউজকে জানান, ৪ মাস আমাদের এই কেন্দ্রে কোন প্রকার ওষুধ বরাদ্দ নেই। কবে নাগাদ ওষুধ আসবে- এটা বলা কঠিন।

‘বরাদ্দ আসলেই ওষুধ দিতে পারবো। এখন প্রতিদিন আসছে লোকজন সেবা নিতে। কিন্তু তাদের ওষুধ না দিয়ে ওষুধের নাম লিখে দেয়া হচ্ছে। এতে করে আমাদেরও সমস্যা হচ্ছে’ বলেন রানা হামিদ।

হরিণাকুন্ডু উপজেলার শাখারিদহ কমিউনিটি ক্লিনিকের হেলথ কেয়ার প্রোপাইটার (এইচসিপি) আসমা আক্তার ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘চার মাস ওষুধ না থাকায় স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ হয়ে গেছে। এখন আর এলাকার লোকজন কেন্দ্রে আসছেন না।’

ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন ডা. আব্দুস সালাম ব্রেকিংনিউজকে জানান, বিএমআরসি ভবন থেকে এ সকল স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ওষুধ প্রদান করে থাকে। অজ্ঞাত কারণেই বেশ কয়েক মাস ওষুধ আসেনি। তবে দ্রুতই সমস্যা সমাধান হবে বলে তিনি জানান।

ব্রেকিংনিউজ/এইচএস



আপনার মন্তব্য

অনুসন্ধান বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং