Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » অনুসন্ধান 

প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে চলছে চিংড়ি শিকার

প্রশাসনকে ফাঁকি দিয়ে চলছে চিংড়ি শিকার
ছবি: ব্রেকিংনিউজ
মাসুদ রানা ০২ নভেম্বর ২০১৫, ৫:৫৬ অপরাহ্ন Print

ভোলা: জেলার মেঘনা নদীতে অবৈধভাবে কীটনাশক দিয়ে চিংড়ি মাছ শিকার করছে কয়েকটি অসাধু চক্র। এতে মাছের প্রজনন ও বংশ বিস্তারসহ মাছের বিচরণ ক্ষেত্র চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

দীর্ঘদিন থেকে চক্রটি অবৈধভাবে লক্ষ লক্ষ চিংড়িসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট ছোট পোনা শিকারের কারণে মারা যাচ্ছে অন্য প্রজাতির মাছ। এতে জলসীমায় মাছের অকাল দেখা দেয়ার পাশাপাশি দেশিয় প্রজাতির মাছের বংশ বিস্তার হুমকির মুখে পড়েছে।

জানা গেছে, দ্বীপজেলার চারদিকে নদী বেষ্টিত হওয়ার ফলে মাছের জন্য বিখ্যাত ভোলা জেলা। প্রতি বছর ভোলা থেকে কোটি কোটি টাকার মাছ জেলার বাইরে বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে অবৈভাবে জাটকা শিকার, বাগদা রেনু ও চিংড়ি শিকারের কারণে মাছের উৎপাদন কমে আসছে।

অভিযোগ উঠেছে, বেশ কিছুদিন ধরে আবদুর রহমান ও আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে একটি চক্র মেঘনার বিভিন্ন পয়েন্টে কীটনাশক প্রয়োগ করে চিংড়ি শিকার করছে। এসব পয়েন্টের মধ্যে মাঝের চর, পাঙ্গাশিয়া, শামপুরা ও ক্লোজার উল্লেখযোগ্য।

সম্প্রতি এই চক্রের আব্দুর রহমানকে বিষ দেয়া মাছ সহকারে বাপ্তা উকিল বাড়ি মোড় থেকে আটক করে। পরে এলাকাবাসী তাকে মারধর করলে তার স্ত্রী এসে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় এবং এই ধরনের কাজ আর করবেনা বলে জানান। স্থানীয় জনগণ মাছ শিকারের ফলে চিংড়ি সংরক্ষণ হলেও কীটনাশকের প্রভাবে অন্য প্রজাতির মাছ ধ্বস হয়ে যাচ্ছে।

এলাকাবাসী জানায়, অসাধু চক্রটি ওই সব মাছ আবার বিভিন্ন ঘাটে ও হাট বাজারে বিক্রি করে লাভবান হলেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে দেশিয় প্রজাতির মাছ। অন্যদিকে ওই সব মাছ ভোক্তারা কিনেও মারত্বকভাবে প্রতারিত হচ্ছে। বিষ দিয়ে শিকার করা ওই মাছ জন স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক।

অন্যদিকে কীটনাশক প্রয়োগে দেদারছে চিংড়ি মাছ শিকারের ফলে দেশিয় প্রজাতির মাছ এখন অনেকটা বিলুপ্তির পথে। মৎস্য রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত কোস্টগার্ড, পুলিশ ও মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তারা মাঝে মধ্যে অভিযান চালালেও সংঘবদ্ধ শিকারি চক্রটি বরাবরই থাকছে ধরা ছোয়ার বাইরে। ফলে দিন দিন তারা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেন।

এ ব্যপারে কোস্টগার্ড দক্ষিন জোনের অপারেশন অফিসার লে. সাজ্জাদুর রহমান ব্রেকিংনিউজকে জানান, ‘কীটনাশক দিয়ে কেউ যাতে চিংড়ি শিকার করতে না পারে সেজন্য কোস্টগার্ডের টিম মাঝে মধ্যেই নদীতে অভিযানে চালাচ্ছে।’

ব্রেকিংনিউজ/প্রতিনিধি/এমই



আপনার মন্তব্য

অনুসন্ধান বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং