Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » সাক্ষাৎকার 

‘পদ নয় দলের স্বার্থে কাজ করি’

‘পদ নয় দলের স্বার্থে কাজ করি’
কিরণ সেখ ০৯ মার্চ ২০১৬, ৪:৪১ অপরাহ্ন Print

ঢাকা: সেলিমা রহমান। সর্বজন শ্রদ্ধেয় এই নারী নেত্রী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে অন্যতম একজন। ১/১১ তে দলের দুঃসময়ে হাল ধরেছিলেন শক্ত হাতে। পরবর্তীতে দলের চেয়ারপরসন খালেদা জিয়ার আস্থাভজনদের তালিকায় স্থান হয় তার। দলের দুর্দিনের বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে থেকেছেন রাজপথের প্রথম সারিতে। বিশেষ করে ২০১৩ সালের ৫ জানুয়ারি বিতর্কীত জাতীয় নির্বাচনের পর পুনরায় আওয়ামী লীগ ক্ষমতা গ্রহণ করায় বিএনপি অনেকটাই কোনঠাসা হয়ে পড়ে। কিন্তু সেলিমা রহমান বরাবরই থেকেছেন দলের চেয়ারপরসনের পাশে। থেকেছেন রাজপথের সংগ্রামে। দলের নীতি-নির্ধারনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকাও রাখছেন তিনি।

চলতি মাসের ১৯ তারিখ দলের দীর্ঘ প্রতিক্ষিত কাউন্সিল। কাউন্সিলের পর আবার আন্দোলন শুরুর কথা বলছে বিএনপি। ইতোমধ্যে কাউন্সিলের কার্যক্রমও শুরু হয়েছে। দলের চেয়ারপারসন ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচন পর্ব ইতোমধ্যে সেরে নেয়া হয়েছে। বলতে গেলে এখন বাকি কাউন্সিলের আনুষ্ঠানিকতা। তবে দলে আর কারা কোথায় স্থান পাবেন তা অনেকটাই হয়তো নির্ধারণ হবে কাউন্সিলে।

কেমন হবে বিএনপির সে কাউন্সিল অনুষ্ঠান? আগামী দিনে কী করবে বিএনপি? কী লক্ষ্যকে সামনে রেখে এবার দল গোছানোর উদ্যোগ? এসব বিষয় নিয়ে ব্রেকিংনিউজের সঙ্গে খোলামেলা আলোচনা করেছেন বিজ্ঞ এই রাজনীতিবিদ। ব্রেকিংনিউজের পক্ষ থেকে সাক্ষাতকারটি নিয়েছেন কিরণ সেখ।

ব্রেকিংনিউজ: ১৯’ মার্চ কাউন্সিল, কাউন্সিলের পর বিএনপি কী করবে, রাজপথের আন্দোলন না-কি ঘরোয়া সভা-সমাবেশ?

সেলিমা রহমান: বিএনপি জাতীয় কাউন্সিলের পর পরিবেশ-পরিস্থিতি বিবেচনা করে আন্দোলনে যাবে। তাই আন্দোলন সম্পর্কে এখন স্পষ্টভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না।

ব্রেকিংনিউজ: দীর্ঘদিন ধরে রাজপথের আন্দোলনে বিএনপিকে দেখা যাচ্ছে না। এর মূল কারণ কী?

সেলিমা রহমান: বিএনপি আন্দোলনের মধ্যেই আছে। এই আন্দোলন চলমান। আর নির্বাচনে অংশগ্রহণও আন্দোলনের একটি অংশ। কিন্তু ক্ষমতাসীনরা বিএনপিকে রাজপথে থাকতে দিচ্ছে না। তাই আমরা দলকে সংগঠিত করছি। যাতে কাউন্সিলের মাধ্যমে দলকে শক্তিশালী করে পরবর্তিতে সরকার বিরোধী আন্দোলনে ঝঁপিয়ে পড়তে পারি। কারণ সরকার বিএনপিকে রাজনীতি থেকে মাইনাস করার ষড়যন্ত্র করছে।

ব্রেকিংনিউজ: কাউন্সিলের মাধ্যমে আসলে বিএনপি কী করতে যাচ্ছে। সম্পূর্ণ পুনঃগঠন না কি কেবলই পদ-বদল?

সেলিমা রহমান: সম্পূর্ণ পুনঃগঠন সম্ভব নয়। কারণ ক্ষমতাসীনরা আমাদের জেলা পর্যায়ের সম্মেলনগুলো করতে দেয়নি। আর বিএনপি কাউন্সিল নিয়েও তারা নানান রকম তাল-বাহানা করছে। তাই স্থায়ী কমিটির যে ক’জন নেতা ইন্তেকাল করেছেন তাদের স্থান পূরণ করা হবে।

এছাড়া আর যে সকল পদ শূন্য রয়েছে সেগুলোর স্থানও পূরণ করা হবে। এর বাইরেও কিছু নেতাকর্মীরা স্থান পাবেন। তবে এই বিষয়টি একমাত্র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াই ভালো বলতে পারবেন।

ব্রেকিংনিউজ:‌ ‘শোনা যাচ্ছে, বিএনপির নতুন এই কমিটিতে তরুণ ও ত্যাগী নেতাদের এবার মূল্যায়ন করা হবে। কথাটি কতটুকু সত্য?

সেলিমা রহমান: ‘হ্যাঁ’ কথাটি সম্পূর্ণ সত্য। বেগম জিয়াও বলেছেন, বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে যারা দলের জন্য কাজ করেছেন তাদেরকে দলের ভালো জায়গায় পদ দেয়া হবে। এছাড়া এই কমিটিতে তরুণদেরই বেশি অগ্রাধিকার দেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন বেগম জিয়া। তাই আমার মনে হয়, বিগত আন্দোলন-সংগ্রামে যারা দলের জন্য কাজ করেছেন তারা ভালো পদে আসবেন এবং এবার বিএনপিতে অনেক তরুণ নেতৃত্ব উঠে আসবে।

ব্রেকিংনিউজ:‌ ভারপ্রাপ্ত থেকে কি ভারমুক্ত হচ্ছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর?

সেলিমা রহমান: আমি ব্যক্তিগতভাবে আশা ও প্রত্যাশা করছি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরই পূর্ণাঙ্গ মহাসচিব হবেন। কারণ তিনি দলের জন্য অনেক কাজ ও ত্যাগ স্বীকার করেছেন। তাই তারই মহাসচিব হওয়া উচিত।

ব্রেকিংনিউজ:‌
‘শোনা যাচ্ছে’ বিএনপির মহাসচিব হওয়ার জন্য ইতিমধ্যে অনেকেই দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন?

সেলিমা রহমান: অনেকেই হয়তো মহাসচিব হতে চান। এতে দোষের কিছু নেই। ফলে মির্জা ফখরুলের অনেক প্রতিদ্বন্দ্বী থাকতে পারে। তবে কারা মহাসচিব হওয়ার জন্য দৌড়ঝাঁপ করছেন, সেটা আমি জানি না।

ব্রেকিংনিউজ:‌ কাউন্সিল নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে প্রাণের সঞ্চয় ঘটবে। সে ক্ষেত্রে নতুন-পুরনো নেতৃত্ব কীভাবে সমন্বয় হতে পারে?

সেলিমা রহমান: পুরনো ও নতুন নেতাদের নিয়েই এবার কমিটি গঠন করা হবে। ফলে সম্পূর্ণ পরনো বা সম্পূর্ণ নতুন নেতৃত্ব আসছে না। অবশ্যই দু’য়ের সমন্বয়ে আগামী দিনের কমিটি আসবে বলে আশা করছি।

ব্রেকিংনিউজ:‌ দলের স্থায়ী কমিটি ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে নতুন কারা আসছেন?

সেলিমা রহমান: এই বিষয়টি একমাত্র খালেদা জিয়াই বলতে পারবেন।

ব্রেকিংনিউজ:‌ ‘শোনা’ যাচ্ছে’ আপনি স্থায়ী কমিটিতে আসছেন?

সেলিমা রহমান: আমি দলের স্বার্থে কাজ করি। পদের জন্য নয়। ফলে আমার কাছে পদ মূল বিষয় নয়, দলই মূল বিষয়। তাই আমাকে কোথায় রাখবেন, কোথায় দিবেন সেটা একমাত্র বেগম জিয়ার বিষয়। আর এই বিষয়টি নিয়ে আমি কখনও হতাশ না।

ব্রেকিংনিউজ:‌ আসন্ন বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল নিয়ে আপনার ব্যক্তিগত অভিমত কী?

সেলিমা রহমান: দীর্ঘ ৬ বছর হলো আমাদের কাউন্সিল হয় না। কারণ আমাদের অনেক নেতাকর্মীই মিথ্যা মামলায় জেল-জুলুম ও হয়রানির স্বীকার হচ্ছেন। তাই কাউন্সিল দেরিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তবে এ কাউন্সিল নিয়ে আমি একটু বেশি উচ্ছাসিত। কারণ মিথ্যা মামলা ও সরকারের নির্যাতনে যে সকল নেতাকর্মীরা রাজনীতি থেকে আড়ালে ছিলেন তারাও এখানে সমাবেত হবেন। দীর্ঘ দিন ধরে যাদের দেখি না, তাদের দেখা পাবো কাউন্সিলের দিন এবং বিএনপির নতুন নেতৃত্ব দেখবো।

ব্রেকিংনিউজ: আপনাকে ধন্যবাদ।

সেলিমা রহমান: ব্রেকিংনিউজকেও ধন্যবাদ।

ব্রেকিংনিউজ/কেএস/এইচএস



আপনার মন্তব্য

সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং