Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » সাক্ষাৎকার 

‘আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে অভিনয় করতাম’

‘আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে অভিনয় করতাম’
সাক্ষাৎকার ডেস্ক ০৩ জুন ২০১৫, ২:০৬ অপরাহ্ন Print

ঢাকা: টাইগার রাজিব বর্তমান সময়ের সম্ভাবনাময় তরুণ প্রতিশ্রুতিশীল খলনায়ক। ছেলেবেলা থেকেই অভিনয়ের স্বপ্ন দেখে এসেছেন। অবশেষে স্বপ্নের পথে হাঁটতেও শুরু করেন। শুভযাত্রা লগ্নে পাথেয় হিসেবে পেয়েছেন উল্লেখযোগ্য বেশকয়েকটি চলচ্চিত্র। মেধাবী, পরিশ্রমী ও আত্মবিশ্বাসী টাইগার রাজিবের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় উঠে এসেছে চলচ্চিত্রের নানা অনুষঙ্গ। ব্রেকিংনিউজের পক্ষ থেকে সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন সালাহ উদ্দিন মাহমুদ

ব্রেকিংনিউজ: কষ্ট করে ব্রেকিংনিউজে আসার জন্য আপনাকে অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
টাইগার রাজিব: না, না। একটুও কষ্ট হয়নি। ব্রেকিংনিউজে আসতে পেরে আমিও ধন্য।

ব্রেকিংনিউজ: এবার অভিনয় প্রসঙ্গে আসি। মানে আপনার অভিনয় জীবনের শুরুটা সম্পর্কে জানতে চাচ্ছিলাম।
টাইগার রাজিব: ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের স্বপ্ন দেখতাম। টেলিভিশনে সিনেমা দেখে বাবার শার্ট পরে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে অভিনয় করতাম। তবে শুরুটা অবশ্য মঞ্চে। ২০০০ সালে ঢাকা থিয়েটারের মাধ্যমে শুরু করি। মঞ্চে ‘বৃন্দাবনে রাধা’ নাটকে প্রথম অভিনয় করি। আর চলচ্চিত্রে প্রথম কলকাতা-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় ‘ভয়ঙ্কর গোলমাল’ এ কাজ করি।

ব্রেকিংনিউজ: এ পর্যন্ত কী কী কাজ করেছেন?
টাইগার রাজিব: এ পর্যন্ত প্রায় ১৯টি চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। ২টি সিনেমার কাজ শেষ হয়েছে। মুন্তাহিদুল লিটনের ‘শেষ চুম্বন’ নামের একটি সিনেমার কাজ চলছে। শিগগিরই শুরু হবে মুকুল নেত্রবাদীর ‘ফিফটি ফিফটি লাভ’ ও রানা হোসেনের ‘অন্তরাল’ সিনেমার কাজ।

ব্রেকিংনিউজ: কয়টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে বা পাওয়ার কথা রয়েছে।
টাইগার রাজিব: এখনো মুক্তি পায়নি। তবে ঈদের পরে এ আর রহমানের ‘এক পলকের দেখা’ ও ইমন হাসানের ‘তুমি তুমি সারাবেলা’ নামের দুটি সিনেমা মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ: বর্তমানে কী কী কাজ করছেন বা কাজের ব্যস্ততা সম্পর্কে একটু বলবেন কি?
টাইগার রাজিব: কাজ করছি। খুব বেশি করা হচ্ছে না। বেছে বেছে কাজ করি। তবে চলচ্চিত্র ছাড়াও একটা টেলিফিল্মে কাজ করেছি। ‘কবিতা ও জীবন’ নামের টেলিফিল্মটি এটিএন বাংলায় ঈদের বিশেষ অনুষ্ঠানে প্রচার হবে। এছাড়া কলকাতা-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় একটি ধারাবাহিক নাটকে কাজ করার কথা চলছে।

ব্রেকিংনিউজ: চলচ্চিত্রে বর্তমান যে অবস্থা বিরাজ করছে। যেমন ধরুন- শিল্পী, নির্মাতা ও উদ্যোক্তা সংকট রয়েছে বলে জানি। এর থেকে উত্তরণে কী করণীয় আছে বলে মনে করেন।
টাইগার রাজিব: দেখুন এটা নীতিনির্ধারকদের ব্যাপার। চলচ্চিত্র শিল্পকে রক্ষা করার দায়িত্ব সরকারের। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ রয়েছে। তারা সুদৃষ্টি রাখলেই চলচ্চিত্রে আমূল পরিবর্তন সম্ভব। শিল্পী হিসেবে নতুন যারা আসছেন তারা প্রশিক্ষণ নিয়ে আসেন না। আগে নিজেকে তৈরি করতে হবে। এছাড়া স্বল্প সময়ে কাজ শেষ করার প্রবণতাতো আছেই। নির্মাতা ও প্রযোজকদেরও আন্তরিক হতে হবে।

ব্রেকিংনিউজ: আপনার স্বপ্ন বা জীবনের লক্ষ্য কী হতে পারে?
টাইগার রাজিব: অভিনয়কে ঘিরেই আমার সব স্বপ্ন। জীবনের লক্ষ্যও অভিনয়কে ঘিরে। দর্শক আমাকে মনে রাখবে। টাইগার রাজিব জনগণের কাছে একটা মডেল হবে। আর ব্যক্তিগত ইচ্ছা বা স্বপ্নের কথা বলতে গেলে একটা বৃদ্ধাশ্রম করবো।

ব্রেকিংনিউজ: অভিনয় করতে গিয়ে কার দ্বারা অনুপ্রাণিত হন।
টাইগার রাজিব: প্রথমেই আমার বাবা-মা। পরিবার আমাকে সবসময়ই সহযোগিতা করেছে। চলচ্চিত্রে অনুসরণ করি মরহুম রাজিব ও হুমায়ুন ফরিদী স্যারকে। বর্তমান সময়ে মিশা সওদাগরকেও অনুসরণ করি।

ব্রেকিংনিউজ: অভিনেতা নাহলে কি হতেন?
টাইগার রাজিব: বাবার ইচ্ছা ছিলো পাইলট হবো। মা চাইতেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা হই। কিন্তু আমি চাইতাম একজন অভিনেতা হবো।

ব্রেকিংনিউজ: মূল্যবান সময় দেয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।
টাইগার রাজিব: ব্রেকিংনিউজকেও ধন্যবাদ। পাঠকের জন্য সীমাহীন ভালোবাসা।

ব্রেকিংনিউজ/এসইউএম



আপনার মন্তব্য

সাক্ষাৎকার বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং