Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

শুক্রবার ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » মুক্তমত 

মগবাজার-মৌচাক সড়ক যেন এক দুঃস্বপ্ন

মগবাজার-মৌচাক সড়ক যেন এক দুঃস্বপ্ন
ইশরাত জাহান ২৫ অক্টোবর ২০১৫, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন Print

উন্নয়ন বিরোধী আমি নই। কিন্তু যথাযথ পরিকল্পনা ছাড়া উন্নয়ন কর্মে জনমানুষের যে দুর্ভোগ তৈরি হয় আমি তাকেই প্রশ্নের মুখোমুখি দাড় করাতে চাইছি। মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার, ৮.২৫ কি.মি দীর্ঘ একটি উড়াল সেতু। এটির নির্মাণকাজ এখনো চলমান। কিন্তু কোন মধ্যেবর্তী ট্রাফিক ব্যবস্থা ছাড়াই এই উন্নয়ন কাজ নগরবাসীকে ফেলেছে দু:সহ কষ্টের মধ্যে।

এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হল সাতরাস্তা’র যানবাহনের ধারন ক্ষমতা বাড়িয়ে উত্তর-দক্ষিনের যান চলাচলের উন্নতি ঘটানো। রাজধানীবাসীর জন্য এটি অবশ্যই স্বস্তিদায়ক একটি প্রকল্প। কিন্তু চলমান এই প্রকল্প বর্তমানে রাজধানীবাসীকে চরম আতংকের মধ্যেও ফেলে দিয়েছে।

কারন ওই এলাকা থেকে বের হতেই ঘন্টা খানেক লেগে যায় যেহেতু ৩ লেন একলেনে পরিনত হয়েছে। নির্মানাধীন থাকার কারনে রাস্তায় গর্ত হয়ে গেছে এবং বৃষ্টি হলেই রাস্তা কর্দমাক্ত হয়ে যায়। কোন ট্রাফিক নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা দেওয়া হয়নি এবং যানবাহন প্রায়ই ইউ-টার্ন নেয় যেটা অন্যদের চলাচলে বিপদ ঘটায়। কিছু কিছু যায়গায় রাস্তা খুঁড়ে রাখা হয়েছে এবং কোন সতর্কবার্তা ছাড়াই সেগুলো উন্মুক্ত হয়ে আছে। এছাড়া নির্মানাধীন স্থানে বালির কাজ চলায় অল্প বাতাসেই সেখানে ধুলা উড়ে। ফলে এ সময় অনেকেরই শ্বাস নিতে কষ্ট হয়। অনেক সময় দেখা যায়, নির্মানের যন্ত্রপাতি দিনের পর দিন রাস্তায় ফেলে রেখে সেগুলো নষ্ট করা হচ্ছে।

বর্তমানে শাহবাগ থেকে রামপুরা যেতে সোয়া দুই ঘন্টা ব্যয় করতে হয় যেখানে সবোচ্চ ২৫ থেকে ৩০ মিনিট লাগার কথা। আমি নিজে সপ্তাহে দুই বার শাহবাগ যাই এবং প্রচণ্ড জ্যাম সহ্য করি। আমি নিশ্চিত আমার মত হাজার মানুষ এই কষ্ট প্রতিদিন সহ্য করে। এই কষ্টের প্রধান কারন হল প্রকৌশলী এবং নির্মান কোম্পানীগুলো মানুষের কষ্টের দিকে নজর দেয়না। কর্তৃপক্ষের পরিপূর্ন পদক্ষেপ নেওয়া উচিত যাতে কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত যানজট কমানো যায়।

সরকার ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারীতে মগবাজার-মৌচাক উড়াল সড়ক প্রকল্প হাতে নিয়েছে যা ২০১৬ সালে ডিসেম্বরে শেষ হবে। মগবাজার-মৌচাক উড়াল সেতু প্রজেক্ট এল.জি.আর.ডি. এর অধীনে এল.জি.ই.ডি এর দ্বারা অনুমোদিত হয়েছে। এই চার লেন উড়াল সড়কের খরচ প্রায় ৭.৭৩ বিলিয়ন ডলার। আমাদের আশা, সরকারের গৃহীত সুন্দর এই প্রকল্পটি পরিবেশ সুরক্ষাসহ সবদিক সমন্বয়ের মাধ্যমে সুচারুভাবে শেষ হবে।

লেখকঃ শিক্ষার্থী, ইস্ট-ওয়েস্ট ইউনিভার্সিটি, ঢাকা

ব্রেকিংনিউজ/আরআর

:: মুক্তমতের জন্য সম্পাদক দায়ী নন ::



আপনার মন্তব্য

মুক্তমত বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং