Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, পূর্বাহ্ন

প্রচ্ছদ » সম্পাদকীয় 

সামাজিক পরিবর্তনে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা অপরিহার্য

সামাজিক পরিবর্তনে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা অপরিহার্য
০৩ মে ২০১৪, ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন Print

‘সামাজিক পরিবর্তনে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা অপরিহার্য’- এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ৩ মে ‘বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস’ পালিত হচ্ছে।

১৯৯১ সালে ইউনেস্কোর ২৬তম সাধারণ অধিবেশনের সুপারিশ মোতাবেক জাতিসংঘ ১৯৯৩ সাল থেকে এ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

বিশ্বব্যাপী গণমাধ্যমের সার্বিক পরিস্থিতি মূল্যায়নের উদ্দেশ্যে ১৯৯৩ সাল থেকে ‘৩ মে’ পালিত হয়ে আসছে ‘বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস’। ১৯৯১ সালে নামিবিয়ার উইন্ডহকে অনুষ্ঠিত ‘ডিকারেশন অন প্রমোটিং ইন্ডিপেন্ডেন্ট অ্যান্ড প্লুরালিস্টিক মিডিয়া’ শীর্ষক সেমিনারের উপর ভিত্তি করে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ কর্তৃক ১৯৯৩ সালের ডিসেম্বরে এ দিবসটি প্রতিষ্ঠিত হয়।

এর মূল লক্ষ্য ছিল, বিশ্বব্যাপী স্বাধীন, অবাধ ও বহুমাত্রিক শক্তিশালী গণমাধ্যম ও তথ্য ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে গণতন্ত্রের অগ্রগতি ও সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন সুনিশ্চিত করা।

আমাদের দেশেও কায়েমী স্বার্থবাদী ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর দুর্নীতি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও অপকর্মের খবর পরিবেশন করার জন্য অনেক সাংবাদিক প্রতিনিয়ত নির্যাতন ও নিপীড়নের শিকার হন। চরম নির্যাতনের শিকার হয়েও অনেক সাংবাদিকের প্রচলিত আইনের আওতায় দীর্ঘমেয়াদি আইনি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার মতো সময় ও অর্থ নেই।

সরকার গণমানুষের তথ্য অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য বহুল প্রত্যাশিত তথ্য অধিকার অধ্যাদেশকে আইনে পরিণত করে বেশ সুনাম অর্জন করেছে। এখন অপেক্ষার পালা- সাংবাদিক সমাজের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য বর্তমান সরকার কী পদক্ষেপ নেয়?

‘বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস’ উপলক্ষ্য ব্রেকিংনিউজের সকল পাঠক, লেখক, সংবাদকর্মী, শুভাকাঙ্খি ও সংশ্লিষ্ট কলা-কুশলীসহ দেশবাসীকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

এ দিনে সকল সংবাদকর্মীর সুখ, সমৃদ্ধি ও শান্তি কামনা করছি।

মো. মাইনুল ইসলাম
সম্পাদক,
ব্রেকিংনিউজ ডটকম ডটবিডি।



আপনার মন্তব্য

সম্পাদকীয় বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং