Facebook   Twitter   Google+   RSS (New Site)

রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, অপরাহ্ন

প্রচ্ছদ » কৃষি ও পরিবেশ 

জাবি গবেষকের সাফল্য

বাটন মাশরুম চাষে সহজ প্রযুক্তি উদ্ভাবন

বাটন মাশরুম চাষে সহজ প্রযুক্তি উদ্ভাবন
ছবি: ব্রেকিংনিউজ
প্রতিনিধি ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৬, ২:৪৬ অপরাহ্ন Print

জা.বি: বিশ্বসেরা বাটন মাশরুমের সহজ চাষ প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের পিএইচ.ডি গবেষক মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

মূল্যবান এই মাশরুম উৎপাদন সম্পর্কে বলতে গিয়ে গবেষক আনোয়ার হোসেন জানান, বাটন মাশরুম বিশ্বসেরা, বাটন মাশরুম মোটামুটি ক্যালরি মুক্ত এবং দেহ গঠনের জন্য উপযোগী উন্নত মানের প্রোটিন, ভিটামিন-বি, ভিটামিন-ডি, রিবোফ্লাবিন, নিয়াসিন সমন্বয়ের এক বিশুদ্ধ অর্গানিক পণ্য। বাণিজ্যিকভাবে মাশরুমটি উৎপাদনে বিশাল স্থাপনা, মূল্যবান যন্ত্রপাতি, প্রশিক্ষিত জনশক্তি ও নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রয়োজন হয়।

মাশরুম উৎপাদন সম্পর্কে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভিদবিজ্ঞানের অধ্যাপক আবুল খায়ের বলেন, গবেষক আনোয়ার হোসেন সারাবছর বিভিন্ন মৌসুমী মাশরুমের উৎপাদনে নিজের ব্যক্তিগত ফার্মে কাজ করে যাচ্ছে, বাটন মাশরুম উৎপাদনে তার এই সফলতা অবশ্যই মাশরুম শিল্পের জন্য একটি বিশাল সুখবর।

বাটন মাশরুমের বৈজ্ঞানিক নাম Agarius bisporus(অ্যাগারিকাস বাইস্পেরাস)। ফরাসী উদ্ভিদবিদ টার্নফোর্ট ১৭০৭ সালে সর্ব প্রথম মাশরুমটির কৃত্তিম উৎপাদনে সফল হন। এরপর ১৮৯৩ সালে ফ্রান্সের পাস্তুর ইনস্টিটিউট ঘোড়ার বিষ্টার কম্পোস্টে চাষ করার জন্য এই মাশরুমের বিশুদ্ধ মাতৃবীজ উৎপাদন করে। পরে বিভিন্ন দেশের এই মাশরুম উৎপাদনে বিস্তর গবেষণা এবং বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হয়।

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী মাশরুমটির বার্ষিক উৎপাদন ২ মিলিয়ন মেট্রিকটন। আমাদের দেশের এই মাশরুম উৎপাদনের অনেক সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান আনোয়ার হোসেন।

ব্রেকিংনিউজ/প্রতিনিধি/ডিএইচ



আপনার মন্তব্য

কৃষি ও পরিবেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত ৩২


উপরে

ব্রেকিং